তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০ টি বাক্য

ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০ টি বাক্য নিয়ে আজকের এই আর্টিকেল আপনাকে স্বাগতম। বর্তমান সময়ে চলার পথে প্রতিটি মানুষ যেন প্রযুক্তি ছাড়া চলতেই পারেনা। সকাল থেকে শুরু করে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার মূহুর্ত পর্যন্ত মানুষ ওতপ্রতভাবে জড়িয়ে রয়েছে।

এই প্রযুক্তি বিভিন্নভাবে ব্যবহার হচ্ছে যেমন মোবাইল ফোন দিয়ে কথা বলা থেকে শুরু করে ইন্টারনেট ব্রাউজিং সমস্ত কিছুই করতে পারছে। অনেকেই ডিজিটাল প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে উপকৃত হচ্ছে আবার অনেকেই হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্থ।

বর্তমান সময়ে একটি বিষয় খেয়াল করা যায় আর সেটি হচ্ছে ডিজিটাল প্রযুক্তি বা ডিজিটাল ডিভাইসের আসক্তি যাকে ডিজিটাল আসক্তি বলা হয়ে থাকে। ডিজিটাল আসক্তি মূলত তিন ধরণের হয় যেমন, মোবাইল, ইন্টারনেট এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।

এই সময়ে প্রায় প্রতিটি মানুষের মধ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তি আসক্তি কিন্তু এখানে একটি লক্ষ্যনীয় বিষয় রয়েছে আর সেটি হচ্ছে এই আসক্তি শিশু কিশোরদের মধ্যে বেশী অধিক লক্ষ্য করা যায়। তাই ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে এমন ১০টি বাক্য তুলে ধরবো যার ফলে প্রযুক্তি সম্পর্কে ভালো একটি ধারণা পাওয়া যাবে।

ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০ টি বাক্য

বাংলাদেশ সহ অন্যান্য দেশ গুলোতে প্রযুক্তির প্রসার প্রতিনিত বেড়েই চলেছে এবং এই প্রসার এত বেশী হয়েছে যে, হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়েই একজন ব্যাক্তি একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারছে এবং সেই সাথে ঘরে বসেই পুরো বিশ্বের সমস্ত কিছু চলে এসেছে মানুষের হাতে হাতে।

তাহলে চলুন ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০ টি বাক্য বাক্য জেনে নেয়া যাক,

  1. ডিজিটাল প্রযুক্তি যেমন মোবাইল ফোন ব্যবহার করার মাধ্যমে ঘরে বসেই বিশ্বের সমস্ত তথ্য পাওয়া যায়
  2. আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহারের ফলে ছবি এবং ভিডিও এডিটিং থেকে শুরু করে মূহুর্তের মধ্যে যেকোনো কিছু লিখে ফেলা যায়
  3. ঘরে বসেই প্লেনের টিকেট থেকে শুরু করে বাস ও ট্রেনের টিকেট কাটা যায়
  4. সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরণের প্লাটফরম ব্যবহার করে অতি সহজেই যোগাযোগ থেকে শুরু করে ছবি ও ভিডিও আপডেট করা যায়
  5. কম্পিউটার সফটওয়্যার ব্যবহার করার মাধ্যমে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের হিসাব রাখা থেকে শুরু করে ব্যাক্তিগত কাজ করা যায়
  6. ডিজিটাল প্রযুক্তির অগ্রগতির ফলে ঘরে বসেই অনলাইন থেকে পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করা যায় এবং টাকা জমা দেয়া যায়
  7. স্কুল থেকে শুরু করে কলেজ এবং বিশ্ব বিদ্যালয়ের টিউশন ফি প্রদান করা থেকে শুরু করে পরক্ষার ফলাফল জানা যায় এবং ভর্তির জন্য আবেদন করা যায়
  8. মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে যেকোনো সময় যেকোনো অবস্থায় টাকা লেনদেন করা যায় এবং ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করা যায়
  9. বিশ্বের যেকোনো লাইব্রেরি থেকে বই পড়া যায় এবং পিডিএফ বই ডাউনলোড করে মোবাইল রাখা যায়
  10. অতি সহজেই রোগ নিরাময় করা যায় এবং সেই সাথে সঠিক চিকিৎসা প্রদান করা যায়

এই ছিল ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০ টি বাক্য যেগুলো ছিল উপকারি দিক। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি যত বেশী অগ্রসর হচ্ছে এর ভালো ব্যবহার করার পাশাপাশি কিছু ক্ষতিকর দিক রয়েছে যেগুলো মানুষের অনেক বেশী ক্ষতি করে থাকে যেমন বর্তমান সময়ে একটি লক্ষ্যনীয় বিষয় হচ্ছে মোবাইল ফোনের আস্কতি যা শিশু কিশোর দের জন্য অনেক ক্ষতি সাধন করছে।

আরও দেখুনঃ তথ্য প্রযুক্তি কি এবং মানব জীবনে এর ব্যবহার

বিশেষ করে বর্তমানে মোবাইল গেমস এবং টিকটক ও ফেসবুকের মত সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে শিশু কিশোর অধিক সময় ব্যয় করছে যার ফলে শিক্ষা থেকে শুরু করে সমস্ত দিকেই অনেক বেশী ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়াও প্রযুক্তির অনেক ব্যবহার রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করার ফলে শিক্ষার্থীদের অনেক উপকার হচ্ছে যেমন চাইলে মোবাইল অথবা কম্পিউটার ব্যবহার করে যেকোনো বিষয়ের সমস্যা সমাধান করা যায়।

ডিজিটাল প্রযুক্তির সটিক ব্যবহার অনেক কিছু বদলে দিতে পারে এবং ঠিক তেমনি প্রযুক্তির বাজে ব্যবহার প্রতিটি মানুষের অনেক বড় ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই সর্বদা প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করা সবার কর্তব্য।

আরও দেখুনঃ শিক্ষাক্ষেত্রে প্রযুক্তির ১০টি ব্যবহার

শেয়ার করুন

নির্ঝর ফারুক

প্রযুক্তি প্রেমী মানুষের মধ্যে আমিও একজন। ছেলেবেলা থেকেই প্রযুক্তির সাথে জড়িয়ে রয়েছি এবং অনেক কিছু শিখেছি ও এখনো শিখছি। যে বিষয় গুলো জানি সেই বিষয় গুলো নিয়েই মূলত এই ওয়েবসাইটে লেখালেখি করি। টেকজোন বাংলার একমাত্র সত্ত্বাধিকারী আমি নির্ঝর ফারুক সক্রিয় থাকবো আপনার সাথে ইনশাল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *