নতুন ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম স্টেপ বাই স্টেপ জেনেনিন

বিশেষ করে নতুন একটি মোবাইল ফোন কেনার পর সে মোবাইল ফোনের ব্যাটারিটা থাকে সেই ব্যাটারিকে কত সময় চার্জ করতে হবে এ বিষয় নিয়ে অনেকে অনেক বেশি কনফিউজ থাকেন। নতুন ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম নিয়ে যে সমস্ত কনফিউশন রয়েছে সমস্ত কনফিউশন আপনাকে আজকে দূর করে দেয়ার চেষ্টা করব।

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন যাদের মোবাইলের ব্যাটারি টি হঠাৎ করে নষ্ট হয়ে যায় এবং পরবর্তীতে নতুন আরো একটি ব্যাটারি ব্যবহার করতে হয় বা নতুন একটি ব্যাটারি কিনতে হয়।

 আর এই সময় আবার নতুন একটি কনফিউশন তৈরি হয়েছে আমি এই ব্যাটারি থেকে কত সময় চার্জ করতে পারব এবং কত সময় চার্জ করলে আমার বেটার এটিপরবর্তীতে দীর্ঘ সময় চার্জ ব্যাকআপ দিবে।

 তাই আজকে আমি এই  আর্টিকেলে নতুন ফোনের ব্যাটারি এবং নতুন কেনা ব্যাটারি কিভাবে চার্জ করতে হয় সম্পূর্ণ কিছু বিস্তারিত ভাবে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করব তাহলে চলুন আমরা আজকের আর্টিকেলটি শুরু করি।

মোবাইলের নতুন ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম

এখন যে সমস্ত বিষয় নিয়ে কথা বলবো সমস্ত বিষয়গুলোকে আপনি একটু মনোযোগ সহকারে দেখবেন এবং সেইসাথে বিষয়গুলোকে নিজের ব্রেইনের মধ্যে সেভ করে রাখার চেষ্টা করবেন।

ব্যাটারিতে ফুল চার্জ

আমরা যখন নতুন একটি ফোন কিনতে যাই তখন কিন্তু সেই ফোনে ফুল চার্জ দেয়া থাকে না যেটুকু চার্জ থাকে সেটি শুধুমাত্র ফোনটিকে চালু করে দেখার জন্য।

কিন্তু এখানে দেখা যায় যে বেশীরভাগ মানুষ মনে মনে ভাবতে থাকি যে ফোনের ব্যাটারি রয়েছে সেটিকে আমি কত সময় চার্জ করব।

তাছাড়া অনেক ফোনের দোকানদার রয়েছে যারা ফোন বিক্রি করার পর বলে দেয় যে আপনি ফোনটি নিয়ে সারারাত বা তিন থেকে চার ঘণ্টা চার্জে লাগিয়ে রাখুন।

বিশেষ করে আপনার যে ফোনটি রয়েছে সেটি তে যদি চার্জ কম থাকে অবশ্যই বাড়িতে যাবেন এবং বাড়িতে যাওয়ার পর আপনার চার্জারটি ফোনের সাথে কানেক্ট করে ফুল চার্জ করবেন।

ফুল চার্জ হওয়ার সাথে সাথে অর্থাৎ 100% চার্জ হওয়ার সাথে সাথে আপনাকে ফোনটি চার্জ থেকে খুলে ফেলতে হবে।

কোনভাবেই ফোনটি 100% চার্জ হওয়ার পর চার্জে লাগিয়ে রাখা যাবেনা কারণ হচ্ছে যখন আপনি ফোনটাকে চার্জে লাগিয়ে রাখেন তখন সেই ফোনটি নিজেই চার্জ গ্রহণ করতে থাকে যার ফলে চার্জার থেকে ভোল্টেজ পাঠানো হয় সেটি ১০০% হওয়ার পর ভোল্টেজ আপডাউন করতে থাকে যা কারণে ফোনের ব্যাটারি এবং ফোনের মাদারবোর্ডের অনেক ক্ষতি হয়।

আরো দেখুনঃ মোবাইল ফোনের সঠিক ব্যবহার জেনে নিজের ফোনকে সুরক্ষিত রাখুন

তাই আপনি অবশ্যই ফোনটা কি 100% চার্জ হওয়ার সাথে সাথে খুলে ফেলবেন এবং সেইসাথে পরবর্তীতে যখন আপনি ফোন রিচার্জ করবেন তখন কোনদিনও আপনি 100% সার্চ করবেন না।

 আপনার ফোনটি চার্জে লাগিয়ে রাখার পর যখন দেখবেন ফোনে 90 পারসেন্ট চার্জ পরিপূর্ণ হয়েছে তখন অবশ্যই আপনি আপনার ফোনটি চার্জ থেকে খুলে ফেলবেন এক্ষেত্রে আপনার ব্যাটারি অনেকদিন যাবৎ টিকে থাকবে।

আর বিশেষ করে আপনার ফোনটি যখন 30% চার্জ নেমে আসবে তখন কিন্তু কোনভাবে ফোনটি আপনি ব্যবহার করতে যাবেন না এতে ফোনের ব্যাটারির উপরে অনেক প্রভাব পরে।

মোবাইলের ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম

বিশেষ করে আমরা দুই ধরনের ফোন ব্যবহার করে একটি হচ্ছে বাটন ফোন এবং অন্যটি হচ্ছে স্মার্ট ফোন।

এই দুই ফোনের মধ্যে স্মার্টফোনের যে সমস্ত ব্যাটারি রয়েছে সেগুলো লিথিয়াম পলিমার দিয়ে তৈরি 4 হলে সে সমস্ত ব্যাটারীতে যদি একটু বেশি চার্জ করা হয় তারপরেও অতি তাড়াতাড়ি ব্যাটারিগুলো নষ্ট হয় না।

কিন্তু এদিকে বাটন ফোনের যে সমস্ত ব্যাটারি রয়েছে সেগুলো তৈরি করা হয় লিথিয়াম আয়ন ব্যবহার করার মাধ্যমে তৈরি করা হয় যার ফলে ব্যাটারিকে যদি আমরা অতিরিক্ত চার্জ করি খুব তাড়াতাড়ি ফুলে যায় এবং ফোনে চার্জ দীর্ঘ সময় থাকেনা।

তাই আমি মনে করি আপনার উচিত হবে আপনার ফোনের ব্যাটারি সেটি স্মার্টফোন হোক অথবা বাটন ফোনে একই নিয়ম মেনে চার্জ করা।

বিশেষ করে যারা একটি বাটন ফোন ব্যবহার করেন তারা তাদের বাটন ফোনের  ব্যাটারি চার্জ করার সময় একটু খেয়াল করে সার্চ করবেন।

সেই সাথে আপনার বাটন ফোনের ব্যাটারি রয়েছে সেটিকে কোনদিনও সারারাত যাব চার্জ করতে যাবেন না এক্ষেত্রে কিছুদিন পর দেখা যাবে আপনার ফোনের ব্যাটারি টি নিজে নিজেই ফুলে গিয়েছে এবং আপনার ব্যাটারীতে আগের মত আর চার্জ থাকছে না।

আপনি চাইলে আপনার স্মার্টফোনটি সারারাত চার্জে লাগিয়ে রাখতে পারেন এতে তেমন বেশী ক্ষতি হবেনা কিন্তু এই কাজ প্রতিদিন করা থেকে বিরত থাকুন তাছাড়াও ফোন কাছে রেখে ঘুমিয়ে গেলে দূর্ঘঠনার তৈরি হতে পারে।

ভুল তথ্য হতে সাবধান

অনেকে আপনাকে ধারণা দিয়ে থাকবে যে আপনার ফোনটি যদি 100% চার্জ হয়েও যায় তারপরও আপনি সাত থেকে আট ঘণ্টা চার্জে লাগিয়ে রাখবেন।

তারা একটি বলে থাকে যে আপনার ফোনটি যদি অতিরিক্ত সময় চার্জে লাগিয়ে রাখেন তাহলে আপনার যে ফোনটি রয়েছে সেটির পারফরম্যান্স অনেক বেড়ে যায়।

এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা কারণ ফোনের পারফরম্যান্স তার রেম এবং রম ও প্রসেসর এর উপর ভিত্তি করে হয়ে থাকে।

তাই আপনার উচিত হবে আপনি আপনার ফোনটি কিনে নিয়ে আসার পর আপনার ফোনটি চার্জে লাগিয়ে দিন এবং সেইসাথে যখন 100% চার্জ হয়ে যাবে তখন ফোনটা চার্জ থেকে খুলে নিন।

আরো দেখুনঃ যে নিয়ম মানলে মোবাইল কোনদিন হ্যাক হবেনা জানতে হলে ক্লিক করুন

চার্জে লাগিয়ে ফোন ব্যবহার

নতুন একটি ফোন কেনার পর প্রায় সবারই একটি আগ্রহ থাকে সেটি হচ্ছে কোনটি অধিক বেশি ব্যবহার করার।

কিন্তু এখানে বিশেষ করে সমস্যার তৈরি হয় আমরা ফোনটা কিনে নিয়ে আসি এবং চার্জে লাগিয়ে দেই এবং দেখা যায় ফোনের পাশে বসেই ফোনটি ক্যামেরা ব্যবহার করা শুরু করি।

এই ধরনের কাজ আপনার কোন সময় করা উচিত নয় কারণ হচ্ছে কি আমরা যখন ফোনটা চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করি তখন কিন্তু ফোন থেকে ইলেকট্রিসিটি গ্রহণ করতে থাকে যার ফলে ব্যাটারি থেকে চার্জ গ্রহণ করে ফোন এবং চার্জার থেকে চার্জ গ্রহণ করে ব্যাটারি।

যার ফলে এক ধরনের কম্বো তৈরি হয় এবং এর ফলে ফোনের ব্যাটারি রয়েছে সেই ব্যাটারির ক্ষতি হয়ে যায় যার কারণে আমাদের উচিত নয় যে ফোনটি কিনে নিয়ে এসে চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করা।

তাছাড়াও যেকোনো সময় আপনার উচিত আপনি আপনার ফোনটা চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার কে না বলুন কারণ চার্জে লাগিয়ে ফোন ব্যবহার করলে ফোনের ব্যাটারি খুব তাড়াতাড়ি গরম হয় এবং গরম হওয়ার কারণে ফোনের ব্যাটারি ফুলে যায় আর ফোনের ব্যাটারি যদি একবার ফুলে যায় তখন কিন্তু আপনার ফোনের ব্যাটারি আগের মত আপনার ফোনকে ব্যাকআপ দিতে পারবে না।

তাছাড়া অনেক সময় আপনি নিউজ দেখে থাকবেন যে চার্জ দিয়ে ফোন ব্যবহার করার সময় ফোন ব্লাস্ট হয়ে গিয়েছে এবং এর কারণে একজনের অঙ্গ বিকলাঙ্গ হয়ে গেছে।

তাই আমি আপনাকে বলতে চাই আপনি কোন ভাবে আপনার ফোনটি চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করবেন না।

চার্জে লাগিয়ে ফোন ব্যবহার করলে কি ক্ষতি হয়

  • খুব তাড়াতাড়ি আপনার ফোনের ব্যাটারি গরম হবে এবং ফুলে যাবে এর ফলে আপনার ফোনে চার্জ এর চেয়ে ব্যাকআপ ছিল সেটাকে দ্রুত কমিয়ে দিবে।
  • ভোল্টেজের কারণে যদি চার্জারের কম্বিনেশন ঠিক না হয় তখন কিন্তু আপনার ফোনের ব্যাটারি রয়েছে সেগুলো কে খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট করে দিবে কারণ চার্জে লাগিয়ে ফোন ব্যবহার করলে তখন যে ভোল্টেজ রয়েছে সেটির আপডাউন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • হঠাৎ করে ব্যাটারিটি অধিক গরম হয়ে ফেটে যেতে পারে এবং যার ফলে যে কোন একটি দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।
  • একদিনে শুধুমাত্র একবার আপনার ফোনটি চার্জ করুন এবং আপনি আপনার ফোনটি কখনোই বারবার চার্জ করে ব্যবহার করতে যাবেন না এর ফলে আপনার ব্যাটারি খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যাবে।
  •  চার্জে লাগিয়ে আপনার ফোনটি ব্যবহার  করলে দেখা যাবে আপনার যে ফোনটি রয়েছে সেটির ব্যাটারি ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এবং সেইসাথে আপনার চার্জারটি দিয়ে আপনার ফোনে চার্জ একদিন খুব দ্রুত হচ্ছে এবং অন্য দিন খুব ধীরে হচ্ছে।
  • তাই নতুন হোক অথবা পুরাতন হোক আপনার ফোনটি চার্জ দিয়ে ব্যবহার কে না বলুন আর যদি আপনার এ ধরনের স্বভাব থেকে থাকে বা অভ্যাস থেকে থাকে অবশ্যই সেটিকে পরিবর্তন করুন এতে আপনারই লাভ হবে।

আপনার জন্য আরো কিছু টিপস,

যেভাবে স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে দলিল পত্র সাক্ষর করতে হয়

মাত্র তিনটি টিপস মানুষ আপনার ফোন কোনোদিন হ্যাং হবেনা

শেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেলে নতুন ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম এবং সেইসাথে আরো আপনাকে কি কি নিয়ম ফলো করতে হবে সমস্ত বিষয় নিয়ে ধাপে ধাপে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছি।

আশা করছি আপনার যে সমস্ত প্রশ্ন ছিল সমস্ত প্রশ্নের উত্তর আপনি পেয়ে গিয়েছেন তারপরও যদি আরো কিছু জানার থাকে অবশ্যই আমাকে কমেন্ট করবেন আপনার কমেন্টের উত্তর আমি তৎক্ষণাৎ দেওয়ার চেষ্টা করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *