শাওমি রেডমি নোট ১০ বাংলাদেশে দাম ২০২২

আমাদের মধ্যে অনেকেই শাওমি রেডমি নোট ১০ বাংলাদেশে দাম কত সেটি জানতে চায়। আর জানতে চাইবে নাই বা কেন? কারণ অসাধারণ ফিচারের জন্য বর্তমানে এই ফোন অনেকের চাহিদার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আপনি যদি শাওমি রেডমি নোট ১০ এর দাম এবং কেনা যাবে কি যাবেনা সমস্ত কিছু একদম বিস্তারিতভাবে জানতে চান তাহলে অবশ্যই এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য এবং আপনি সঠিক আর্টিকেল খুজে পেয়েছেন।

বিশেষ করে শাওমির নোট সিরিজের ফোন গুলো মানুষের কাছে অনেক বেশী ভালোবাসা পেয়েছিল এবং এখন অব্দি সেই ভালোবাসা আছে। আর ভালোবাসা থাকবেইনা কেন কারণ কম দামের মধ্যে এই ফোনের মধ্যে এমন কিছু নেই যে, দেয়া নেই। এত কিছু কেন বলছি সেটির উত্তর আপনি এই রিভিউ থেকেই পেয়ে যাবেন বলে আশা করছি। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

Xiaomi Redmi Note 10 -শাওমি রেডমি নোট ১০

প্রথম রিলিজমার্চ ২০২১
কালারশ্যাডো ব্ল্যাক, ফ্রস্ট হোয়াইট, অ্যাকোয়া গ্রিন
সংযোগ
নেটওয়ার্ক২জি, ৩জি, ৪জি
সিম কার্ডডুয়াল ন্যানো সিম কার্ড
ল্যানডুয়াল-ব্যান্ড, সরাসরি Wi-Fi, Wi-Fi হটস্পট
ব্লুটুথভার্সন ৫.০
জিপিএসএ-জিপিএস, গ্লোনাস, বিডিএস, গ্যালিলিও
রেডিওএমএম রেডিও
ইউএসবিভার্সন ২.০
ওটিজিসাপোর্ট
ইউএসবি টাইপ সিসাপোর্ট
  বডি স্টাইল
স্টাইলপাঞ্চ হোল
উপাদানগরিলা গ্লাস ৩ ডিসপ্লেতে, প্লাস্টিকের বডি
পানি প্রতিরোধীনা
মাত্রা১৫৬.৫ * ৭৫.৪ * ৯.৪ মিলিমিটার
ওজন১৭৮.৮ গ্রাম
  ডিসপ্লে
পরিমাণ৬.৪৩ ইঞ্চি
রেজুলেশনএইচডি ১৮০০*২৪০০ পিক্সেল
প্রযুক্তিসুপার অ্যামোলেড টাচ স্ক্রিন
সুরক্ষাকরনিং গরিলা গ্রাস-৩
ফিচারমালটিটাচ
ক্যামেরা
ব্যাক সাইড৪৮+৮+২+২ মেগাপিক্সেল
বৈশিষ্ট্যPDAF, LED ফ্ল্যাশ , HDR, 118º আল্ট্রাওয়াইড, ম্যাক্রো, গভীরতা
রেকর্ডিং১০৮০ পিক্সেল মুড
সেলফি ক্যামেরা১৩ মেগা পিক্সেল
ফিচারF/2.5, HDR, 1/3.06″, 1.12µm এবং আরও অনেক কিছু
ভিডিও রেকর্ডিংআলট্রা এইচডি ২১৬০ পি
ব্যাটারিলিথিয়াম পলিমার ৫০০০ এমএএইচ
 চার্জার৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জার
অপারেটিং সিস্টেমএন্ড্রেয়েড ১১
চিপ্সেটকুয়ালকম স্নাপড্রাগন-৬৭৮
মেমোরি
র‍্যাম৪/৬ জিবি
রম৬৪/১২৮ জিবি
প্রসেসরঅক্টাকর ২.০ জিএইচজি
লক স্ক্রিনফিঙ্গার প্রিন্ট ও ফেস আনলক

হাজার মানুষের পছন্দের একটি ফোন এটি আর এর কারণ হচ্ছে এই ফোনের সাথে ইনবিল্ড ২জি, ৩জি এবং ৪জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা হয়ছে শুধু তাই নয় এই ফোনের সাথে ডুয়াল ন্যানো সিম কার্ড ব্যবহার করা যাবে।

Shadow Black (Onyx Gray), Frost White (Pebble White), Aqua Green (Lake Green) এই তিনটি কিলার সমৃদ্ধ শাওমি নোট সিরিজের এই ফোনটিতে ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি, ওটিজি, এবং অন্যান্য সমস্ত ফিচার যুক্ত করা রয়েছে।

তাছাড়া এই ফোনের জন্য ইউএসবি 2.0 এবং র ওটিজি সাপোর্ট। লক্ষ করলে দেখা যায় ফোনটির বডিতে Punch-hole এবং মেটেরিয়াল হিসেবে Gorilla Glass 3 front এবং এর বডি তে রয়েছে শুধুমাত্র প্লাস্টিক।

ফোনটি ডিসপ্লের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় এর সাইজ রয়েছে 6.43 ইঞ্চি এবং সেইসাথে রেজুলেশন ব্যবহার করা হয়েছে ফুল এইচডি প্লাস  1080* 2400 পিক্সেল এবং সেইসাথে ডিসপ্লের টেকনোলজি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে সুপার এমোলেড টাচস্ক্রিন এবং প্রটেকশন হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কর্নিং গরিল্লা গ্লাস 3 এবং সেইসাথে শাওমি রেডমি নোট ১০ ফোনটিতে দেখা যায় ডিসপ্লে তে ব্যবহার করেছে  multi-touch ফিচার এবং সেইসাথে 450 নিটস।

ক্যামেরার দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে ফোনটিতে ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করেছে সর্বমোট 4 টি ক্যামেরা প্রথমটি 48 মেগাপিক্সেল দ্বিতীয়টি 8, তৃতীয়টি 2 মেগাপিক্সেল এবং চতুর্থ 2 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা এবং রয়েছে PDAF, LED flash, HDR, 118º ultrawide, macro, depth & more ফিচার।

সেই সাথে এই ফোনের ব্যাক ক্যামেরা ব্যবহার করে Ultra HD (2160p) পিক্সেলে ভিডিও ধারণ করা যাবে। যারা ভিডিও তৈরি করতে অনেক বেশী ইচ্ছুক তারা চাইলেই এই ফোনটি কিনতে পারেন।

তাছাড়াও এই ফনের ফ্রন্ট বা সেলফি ক্যামেরা হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে 13 Megapixel ক্যামেরা এবং ফিচার হিসাবে রয়েছে F/2.5, HDR, 1/3.06″, 1.12µm & more সেই সাথে সেলফি ক্যামেরা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও ধারণ করা যাবে।

শাওমি রেডমি নোট ১০ বাংলাদেশে দাম এর দিকে খেয়াল করলে দেখা যাচ্ছে সমস্ত কিছুই অনেক বেটার পারফর্ম করছে। এই ফোনের চার্জিং পারফর্মেন্স বেটার রাখার জন্য শাওমি নোট ১০ ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Lithium-polymer 5000 mAh (non-removable) নন রিমুভাল ব্যাটারি এবং বেস্ট মুডে চার্জ দেয়ার জন্য ✅ 33W Fast Charging (50% in 25 min, 100% in 74 min)।

এই ফোনটির পারফর্মেন্স এর দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে

যদি ফোনটির পারফরম্যান্সের দিকে লক্ষ্য করা যায় তাহলে দেখা যাচ্ছে যে ফোনের অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যানড্রয়েড 11 এবং সেইসাথে ইউজার ইন্টারফেস হিসেবে এমআইইউআই 12।

চিপ্সেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম Qualcomm Snapdragon 678 (11 nm) এবং তাছাড়াও দেখা যাচ্ছে যে প্রসেসর ব্যবহার করেছে Octa core, up to 2.0 GHz।

যদি স্টোরেজ এর কথা বলা হয় তাহলে দেখা যায় যে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে দুটি ভেরিয়েন্ট র‍্যাম একটি হচ্ছে 4gb অন্যটি হচ্ছে 6gb রম এর ক্ষেত্রে ঠিক একই রকম যেমন প্রথমটি ব্যবহার করা হয়েছে 64 জিবি এবং দ্বিতীয় টি ব্যবহার করা হয়েছে 128gb আর আলাদা আলাদা স্টোরেজের কারণ হচ্ছে এই ফোনটি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আপডেটে পাবলিশ করা হয়।

এখন যদি ফোনটির সিকিউরিটির কথা বলা হয় তাহলে দেখতে পাই যে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সাইট মাউন্টেন এবং সেইসাথে ব্যবহার করা হয়েছে ফেস আনলক। তাছাড়া সেন্সর হিসেবে পাচ্ছেন Fingerprint, Accelerometer, Gyroscope, Proximity, E-Compass এবং সেইসাথে নোটিফিকেশন লাইট তো আছেই।

আর দেখুন,

ভালো এবং খারাপ দিক

শাওমি রেডমি নোট ১০ বাংলাদেশে দাম এর দিখে খেয়াল করলে দেখা যাচ্ছে এটিতে তিন ধরণের দাম রয়েছে কারণ এই ফোনে র‍্যাম এবং রমের পার্থক্য রয়েছে। আর এই কারণেই ফোনটির বিল্ডইন কোয়ালিটি অনেক ভালো মনে হয়েছে আমার কাছে।

কারণ তিন ধরণের দাম হলেও ফিচার গুলো একি রয়েছে। যে ৪ জিবি র‍্যামের ফোনটি কিনবে তার জন্য সমস্ত ফিচার গুলো অনেক বেস্ট হবে। তাছাড়াও এই ফোনের ক্যামেরা, ডিসপ্লে, আউটলুক, সমস্ত কিছুই আউটস্টান্ডিং।

এদিকে যদি ফোনটির নকশার দিকে খেয়াল করা যায় তাহলে দেখা যায় একদম লাইট মসৃণ রয়েছে যেটি দেখতে অসাধারণ এবং সেই সাথে ফোনটিতে যে ব্যাটারি ব্যাকাপ রয়েছে সেটি ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকাপ দিতে সক্ষম।

বড় ডিসপ্লের সাথে ব্যহার হয়েছে পাঞ্চ হোল যেটি একটি ফোনকে অন্যরকম লুক দিতে সক্ষম। র‍্যাম, রম, প্রসেসর, চিপ্সেট এবং অপারেটিং সিস্টেম অন্য রকম এক্সপেরিয়েন্স দিতে সক্ষম।

যদি ফোনটির খারাপ দিকের কোথা বলা হয় তাহলে তেমন কোন খারাপ দিক নেই বললেই চলে কিন্তু এই ফোনে একটি কম সমস্যা রয়েছে সেটি হচ্ছে এই ফোনের একটু স্পর্শ কাতর কিছুতে কিছু হলেই দাক হয়ে যায় এবং অতিরিক্ত যে দুইটি ক্যামেরা দেয়া আছে ক্যামেরা দুটি তেমন ভালো নয়।

তাছাড়া এই ফোনের সমস্ত কিছু অসাধারণ। চাইলেই আপনি ফোনটি কিনতে পারেন। রেডমির দাম জানুন,

Official ✭৳19,999 4/64 GB
৳20,999 4/128 GB
৳22,999 6/128 GB

Xiaomi Redmi Note 10 Pro

শাওমি রেডমি নোট ১০ বাংলাদেশে দাম

শাওমির নোট ১০ এর পরের আপডেট হচ্ছে নোট ১০ প্র। এই ফোনটির বডির যে স্টাইল রয়েছে সেটি আগের ফোনের সাথে মিল রেখেই তৈরি করা হয়েছে। শুধু পরিবর্তন হয়েছে কিছু ফিচার এবং দামের।

যেমন এই ফোনটি Dark Night, Vintage Bronze এই দুটি কালারে পাওয়া যাবে শুধু তাই নয় যে ফোনটিতে ৬৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে সেই ফোনটিতে আলাদাভাবে Glacial Blue দেয়া রয়েছে।

তাছাড়াও এই ফোনে ২জি, ৩জি ও ৪জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করার পাশা-পাশি ডুয়াল ন্যানো সিম কার্ড ব্যবহার করা যাবে। এদিকে বডির কাঠামোর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে এবং যেই ফোনটি ৬৪ মেগা পিক্সেলের সেই ফোনটিতে গ্লাস ব্যবহার হয়েছে কাচের এবং ব্যাক সাইড প্লাস্টিক।

কিন্তু এদিকে ১০৮ মেগা পিক্সেলের সেটিতে ডিসপ্লে গ্লাস এবং ব্যাক ও পুরো ম্যাটেরিয়াল গ্লাস ব্যবহার হয়েছে। সেই সাথে এই ফোনের ডিসপ্লে সাউজ রয়েছে 6.67 inches এবং রেজুলেশন থাকছে Full HD+ 1080 x 2400 pixels (395 ppi) ও সেই সাথে সুপার এমোলেড ও এমোলেড ডিসপ্লে।

এদিকে ডিসপ্লের প্রটেকশনের জন্য দেয়া রয়েছে করনিং গরিলা গ্লাস-৫। ক্যামেরার দিকে খেয়াল করলে দেখা যায় একটিতে ব্যবহার হয়েছে Quad 64+8+5+2 Megapixel ক্যামেরা এবং অন্যটিতে ব্যবহার হয়েছে Quad 108+8+5+2 ক্যামেরা।

ক্যামেরা দুটি দিয়েই ২১৬০ পিক্সেলে ভিডিও ধারণ করা যাবে। সেই সাথে এই ফোনে সেলফি ক্যামেরা ব্যবহার হয়েছে 16 Megapixel যেটি দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে অনায়াসে ভিডিও ধারণ করা যাবে।

তাছাড়াও এই ফোনের চার্জ ব্যাকাপের জন্য ব্যবহার হয়েছে Lithium-polymer 5020 mAh (non-removable) ব্যাটারি এবং 33W Fast Charging ব্যবস্থা। এদিকে অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে ব্যবহার হয়েছে Android 11 (MIUI 12) ও চিস্পেস্ট রয়েছে Qualcomm Snapdragon 732G (8 nm) এর।

ফোনটিতে প্রসেসর ব্যবহার হয়েছে Qualcomm Snapdragon 732G (8 nm) এবং স্টোরেজ হিসাবে এটিতে রয়েছে 6 GB রেম এবং 64 / 128 GB (UFS 2.2) রম। তাছাড়াও চাইলে আলাদাভাবে ডেডিকেটেড মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে।

সিকিউরিটির জন্য ফেস আনলক, ফিঙ্গার প্রিন্ট দেয়া রয়েছে সেই সাথে নটিফিকেশন লাইট যুক্ত রয়েছে।

ভালো এবং খারাপ দিক

সমস্ত কিছু খেয়াল করলে দেখা যায় এই ফোনটিতে তেমন কোন কিছুই বাজে ব্যবহার হয়নি। বর্তমান সময়ের জন্য যে সমস্ত ফিচার একটি ফোনে থাকা দরকার তার সমস্ত ফিচার রয়ছে। বিশেষ করে এই ফোনটিতে দুই ধরণের রম ও ক্যামেরা ব্যবহার হয়েছে যার ফলে শুধু রম ও ক্যামেরা ব্যাতিত সমস্ত ফিচার একই রয়েছে।

এদিক দিয়ে তুলনা করে বেস্ট একটি ফোন। এই ফোনের ক্যামেরা থেকে শুরু করে ব্যাটারি পারফর্মেন্স সমস্ত কিছুই দুর্দান্ত রয়েছে। তাই চাইলেই আপনি ফোনটি কিনতে পারেন।

আমার কাছে তেমন কিছুই খারাপ লাগেনি কিন্তু ফোন ব্যবহার করার সময় একটু সাবাধান থাকতে হবে কারণ ১০৮ মেগা পিক্সেলের ফোনটিতে পুরোটাই গ্লাস বা কাচ ব্যবহার করা হয়েছে।

Official ✭৳25,999 6/64 GB | 64MP Version
৳26,999 6/128 GB | 64MP Version
৳29,999 6/128 GB | 108MP Version

Leave a Reply

Your email address will not be published.